1. info@www.dailyrupantor.com : news :
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:০৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
নওগাঁয় শতভাগ স্বচ্ছতার ভিত্তিতে কনস্টেবল পদে নিয়োগের ঘোষণা অ্যাকসেস বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের আয়োজনে বিভাগীয় প্রাক বাজেট আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ভাগ্য খুলেছে কলাপাড়াবাসীর, অধ্যক্ষ মহিববুর রহমানের প্রতিমন্ত্রী হওয়ার খবরে কলাপাড়ায় আনন্দ মিছিল, মিষ্টি বিতরণ। নতুন মন্ত্রিসভার শপথ আজ, মন্ত্রী ২৫ প্রতিমন্ত্রী ১১ জন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ইশতেহারে ১১ অগ্রাধিকার কলাপাড়ায় এক কেজি ৫০০ গ্রাম গাঁজা সহ এক মাদক ব্যাবসায়ী আটক কলাপাড়া থানার ওসিকে প্রত্যাহার চেয়েছে নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিস্ট দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দাখিল।। ঝিনাইগাতীর এক কালের খরস্রোতা মহারশী নদী এখন মরাখালে পরিণত শিবচরে পত্রিকা পরিবহনের স্বত্বাধিকারীর অকাল মৃত্যু  অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য তৎপরতা চালিয়ে যাবে যুক্তরাষ্ট্র-জন কিরবি

১৯ বছর পলাতক ঝিনাইগাতীর ধর্ষক জাকির হোসেন গ্রেপ্তার  

আরএম সেলিম শাহী, স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশিত: বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০২৩
  • ১২৬ বার পড়া হয়েছে

শেরপুরে চাঞ্চল্যকর ৬ বছরের শিশু ধর্ষন মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মোঃ জাকির হোসেন (৩৫) কে দীর্ঘ ১৯ বছর ধরে পলাতক থাকার পর নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানা এলাকা হতে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-১, জামালপুর ক্যাম্প।

জাকির হোসেন জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার নলকুড়া গ্রামের মোঃ আবেদ আলীর ছেলে। আটককৃত আসামীকে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নিতে ঝিনাইগাতী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে র‌্যাব-১৪ এর দেয়া এক প্রেস রিলিজে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

ঘটনার মামলা সূত্রে র‌্যাব জানায়, ভিকটিম গত ২৬ নভেম্বর ২০০৪ খ্রি. রোজ শুক্রবার বিকেলে তার বাবার খোঁজে বাড়ীর পশ্চিম পাশে মহারশি নদীর ধারে যায়। বাবাকে না পেয়ে বাড়ীতে ফিরছিল শিশুটি। এমন সময় একই গ্রামের মোঃ আবেদ আলীর ছেলে আসামী জাকির হোসেন ভিকটিম অবুঝ শিশুটিকে নদীর ধারে একটি ঝোপ ঝারের ভিতর নিয়ে জোরপূরর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ভিকটিমের আত্মচিৎকারে তার মা ও স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে আসামী জাকির হোসেন দ্রুত পালিয়া যায়। পরে স্থানীয় লোকজন ভিকটিমকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে।

পরে ভিকটিমের বাবার দাখিলকৃত এজাহারের ভিত্তিতে ঝিনাইগাতী থানায় একটি ধর্ষণ মামলা রুজু হয়, মামলা নং-০৭/৯১, তারিখঃ ২৮/১১/২০০৪ ইং, ধারা- নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ৯(১)। মামলার তদন্ত শেষে আসামীর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ ট্রাইবুনাল-২, শেরপুর গত ৮ ইং অক্টোবর ২০০৯ ইং তারিখে আসামী জাকিরকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো ৩ মাসের সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেন। মামলার পর থেকেই গত ১৯ বছর ধরে পলাতক ছিল আসামি জাকির হোসেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং